কিভাবে একটি ইউটিউব চ্যানেল থেকে আয় করবেন। 3 Best Ways

হ্যালো বন্ধুরা,
কিভাবে ইউটিউব চ্যানেল থেকে আয় তা নিয়েই আজকের পোস্ট।  আশা করি আপনারা সবাই অনেক ভালো আছেন। বর্তমানে প্রায় আমরা অনেকেই চাই অনলাইন থেকে কিছু ইনকাম করতে। অনলাইন ইনকামের জনপ্রিয় মাধ্যমগুলোর মধ্যে ইউটিউবিং অন্যতম। ইউটিউব থেকে টাকা আয় করতে হলে আপনাকে একটি চ্যানেল তৈরি করতে হবে। এবং সেই চ্যানেলে আপনাকে গুগল এডসেন্স দ্বারা মনিটাইজ করতে হবে। তো আপনাদের মাঝে অনেকেই আছেন যারা ইউটিউব চ্যানেল খুলে কিভাবে টাকা উপার্জন করবেন তা জানেননা। তাই আপনাদের জন্য আমার এই পোস্ট।

ইউটিউব চ্যানেল থেকে ইনকাম

ইউটিউব কি

ইউটিউব হচ্ছে একটি জনপ্রিয় ভিডিও শেয়ারিং সাইট। এই ওয়েবসাইটে ভিডিও দেখার পাশাপাশি এখানে চ্যানেল খুলে টাকা ইনকাম করা সম্ভব। এই ইউটিউব ২০০৫ সালের ১৪ই ফ্রেব্রুয়ারিতে Chad Hurley, Steve Chen, Jawed Karim তিনজন মিলে প্রতিষ্ঠা করেন।

ইউটিউব চ্যানেল থেকে আয় করার মাধ্যম

ইউটিউব থেকে আপনে প্রধানত তিনভাবে টাকা আয় করতে পারবেন।

  1. গুগল এডসেন্স
  2. স্পনসর
  3. এফিলিয়েট মার্কেটিং
Read also  ইউটিউব ভিডিও ডাউনলোড করুন সবচেয়ে সহজ ২টি উপায়ে

গুগল এডসেন্সঃ-

গুগল এডসেন্সের মাধ্যমে ইউটিউব থেকে টাকা আয় করতে হলে অবশ্যই আপনার চ্যানেলে গুগল এডসেন্স দ্বারা মনিটাইজ থাকতে হবে। পূর্বে একটি ইউটিউব চ্যানেল খোলার সাথে সাথেই গুগল এডসেন্স মনিটাইজ করা গেলেও বর্তমানে একটি চ্যানেলে মনিটাইজেশনের জন্য করতে হলে অবশ্যই আপনার চ্যানেলে সকল ভিডিওতে শেষের ১২ মাসে সর্বমোট ৪০০০ ঘন্টা ওয়াচটাইম ও ১০০০ সাবস্ক্রাইবার থাকতে হবে। তো অনেকে ভাবতে পারেন চ্যানেল খোলা থেকে ১ বছরের মধ্যে ৪০০০ ঘন্টা ওয়াচটাইম ফিলাপ করতে না পারলে আপনি এডসেন্সের জন্য আবেদেন করতে পারবেন না।

আসলে ব্যাপারটা তা নয়। ধরুন, আপনে চ্যানেল খুলছেন ২০২০ সালের ১৯ই ডিসেম্বর কিন্তু ১ বছরের মধ্যে তথা ২০২১ সালের ১৮ই ডিসেম্বরে আপনার চ্যানেলে সর্বমোট ওয়াচটাইম হয়েছে ৩০০০ ঘন্টা। এবং পরবর্তি কয়েকমাস পরে আপনার চ্যানেলে ৪৫০০ ঘন্টা ওয়াচটাইম হয়েছে । আর এইদিকে চ্যানেল খোলার প্রথম কয়েকমাসে আপনার তেমন ভালো ওয়াচটাইম হয়নাই। তারপরও যদি আপনি চ্যানেল থেকে মনিটাইজ অপশনে গেলে যদি দেখেন ৪০০০ ঘন্টা ওয়াচটাইম হয়েছে তাহলেই আপনি গুগল এডসেন্সের জন্য আবেদন করতে পারবেন।

Read also  একটি ইউটিউব চ্যানেল খোলার সহজ উপায় - Create a Youtube Channel

গুগল এডসেন্সের জন্য আবেদন করার পর ইউটিউব টিম আপনার চেনেলটি পর্যবেক্ষন করবে। তারপর যদি ইউটিউবের কাছে মনে হয় যে আপনার চ্যানেলটি গুগল এডসেন্স এপ্রোভ পাওয়ার যোগ্য তাহলেই কেমন আপনার চ্যানেলে মনিটাইজেশন চালু করে দিবে। এবং মনিটাইজেশন চালু করার পর আপনার ভিডিওগুলো মনিটাইজ করে ইউটিউব চ্যানেল থেকে আয় করতে পারবেন। এবং ইউটিউব থেকে ইনকামের টাকা আপনার গুগল এডসেন্সে প্রতিমাসে ১১-১২ তারিখে জমা হয়ে যাবে।

প্রথম অবস্থায় আপনার গুগল এডসেন্সে ১০ ডলার হলে আপনার ঠিকানা যাচাই করার জন্য গুগল এডসেন্স থেকে আপনাকে একটি পিন ভেরিফিকেশন চিঠি পাঠানো হবে। সেই চিঠি হাতে পাওয়ার পর ওই পিন দিয়ে আপনার গুগল এডসেন্সে ঠিকানা ভেরিফাইড করতে হবে। সাধারনত বাংলাদেশ থেকে গুগল এডসেন্স পিন ভেরিফিকেশন চিঠি হাতে পেতে ১৫-৩০ দিন সময় লাগে। তারপর আপনার এডসেন্সে ১০০ ডলার হলেই ইউটিউব চ্যানেল থেকে ইনকাম করা টাকা উঠাতে পারবেন। আপনি চাইলে লোকাল ব্যাংকের মাধ্যমে অথবা চেকের মাধ্যমে এডসেন্স থেকে পেমেন্ট নিতে পারবেন।

স্পনসর

গুগল এডসেন্সের পাশাপাশি বিভিন্ন কোম্পানির প্রোডাক্ট রিভিউ করে আপনি ভালো একটা এমাউন্ট ইনকাম করতে পারবেন। আপনার চ্যানেল যখন বড় হবে তখন বিভিন্ন কোম্পানি আপনাকে স্পন্সর করার জন্য অফার করবে। আপনি চাইলে লোকাল কোন কোম্পানির পন্যের স্পন্সরও নিতে পারেন।

Read also  ইউটিউব ভিডিও ডাউনলোড করুন সবচেয়ে সহজ ২টি উপায়ে

এফিলিয়েট মার্কেটিং

ইউটিউব থেকে টাকা ইনকামের আরেকটি জনপ্রিয় মাধ্যম হচ্ছে এফিলিয়েট মার্কেটিং। Amazon সহ আপনি বিভিন্ন সাইট থেকে এফিলিয়েট লিংক নিয়ে এফিলিয়েট মার্কেটিং এর মাধ্যমেও ইউটিউব চ্যানেল থেকে আয় করতে পারবেন।

আশা করছি আপনারা বুঝতে পারছেন যে কিভাবে একটি ইউটিউব চ্যানেল থেকে আয় করতে পারবেন। আগামী পোস্টে আমরা দেখব কিভাবে একটি ইউটিউব চ্যানেল খোলতে হয় ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *